সাকিবের পাশে থাকবে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়

কোন ম্যাচ সেটা নির্দিষ্ট করে বলা না গেলেও দেশের শীর্ষ একটি পত্রিকার ভাষ্যমতে, কোনো এক শীর্ষ জুয়াড়ীর কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব। কিন্তু নিজের লক্ষ্য অবিচল রেখে সেই প্রস্তাবকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দেন বিশ্বসেরা তারকা। কিন্তু সমস্যাটা হলো, এই বিষয়টা সম্পূর্ণই চেপে রাখেন সাকিব। ফলে আর এ নিয়ে তখন কোথাও কোনো কথা কিংবা আলোচনা হয়নি।

ঐদিকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি’র নিয়ম অনুযায়ী, কোনো জুয়াড়ীর কাছ থেকে ম্যাচ গড়াপেটার প্রস্তাব পেলে সেটা অবশ্যই তৎক্ষনা জানাতে হবে তাদের দুর্নীতি দমক ইউনিট ‘আকসু’ কে। কিন্তু সাকিব সেটা না করায় ই বিপত্তিটা বাধে। যার ফলে, আকসুর গোয়েন্দা দল উক্ত জুয়াড়ীর মোবাইল ট্র্যাক করে সাকিবের সংশ্লিষ্টতা পায় এবং সাকিবকে জেরা করেন। সাকিব নিজেও আত্মপক্ষ সমর্থন করে বিষয়টা স্বীকার করে নেয়ায় এখানেই বিষয়টার নিষ্পত্তি হয়ে যায়।

কিন্তু সমস্যা একটা রয়েই যায়, সেটা হলো সাকিব জেনেশুনেও কেন আইসিসিকে জানালেন না বিষয়টা? কেন চেপে রাখলেন? এজন্য সব স্বীকার করার পরও শাস্তির মুখোমুখি হতে হচ্ছে দেশসেরা কান্ডারীকে। সেই শাস্তির পরিমান? যে অভিযোগ সাকিবের বিপক্ষে এসেছে তা আইসিসির এন্টি করাপশন কোড এর ২.৪.৪ লঙ্ঘন। যার সর্বনিম্ন শাস্তি ৬ মাস নিষেধাজ্ঞা, সর্বোচ্চ ৫ বছর (৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তে হালনাগাদকৃত আইসিসির এন্টি করাপশন কোডস ফর পার্টিসিপ্যান্টস অনুযায়ী)।

এই ব্যাপারে সাকিব আল হাসানের পাশে থাকবে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এমনটাই জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। আজ সচিবালয়ে সংবাদ মাধ্যমের সাথে কথা বলার প্রাক্কালে প্রতিমন্ত্রী জানান, সাকিব যাতে অন্যায়ভাবে শাস্তির মুখে না পড়ে সে ব্যাপারে তাকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করবেন তারা। তিনি বলেন,

‘সাকিবের বিষয়টি নিয়ে আমরা ধোঁয়াশায় আছি। বোর্ডের সঙ্গেও আমরা কথা বলেছি, তাদেরও বিষয়টি জানা নেই। আইসিসি বিষয়টি তদন্ত করছে। তবে আজকেই বিষয়টি জানা যাবে। সাকিব যাতে অন্যায়ভাবে শাস্তির মুখে না পড়ে সেজন্য তার পাশে থাকব আমরা। আইসিসি বিসিবিকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। ফলে সাকিবের ভারতের ট্যুরটি অনিশ্চয়তায় রয়েছে। আমি বোর্ডকে বলেছি আইসিসির সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য। আজকে তারা আইসিসির কাছে বিষয়টি জানতে চাইবে। আজকেই জানা যাবে কি হতে যাচ্ছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here