‘আইসিসির নির্দেশে বাংলাদেশের জার্সিতে নেই লাল’- টাইগার্স কেইভকে ডিজাইনার সেন্টু

উন্মোচন করা হয়েছে বাংলাদেশের ২০১৯ বিশ্বকাপ জার্সি। সোমবার দুপুরে বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন অধিনায়ক মাশরাফির হাতে আসন্ন বিশ্বকাপের টাইগারদের জার্সি তুলে দেন। পরে বিশ্বকাপ দলে ডাক পাওয়া ক্রিকেটারেরা বিশ্বকাপ জার্সি পড়ে করেন ফটোসেশন।

এদিকে লাল সবুজ প্রতিনিধিদের জার্সিতে নেই ‘লাল’ রঙের কোনও অস্তিত্ব। জার্সির ডিজাইন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াসহ টাইগার ভক্তরা দিচ্ছেন মিশ্র প্রতিক্রিয়া। অনেকেই এ জার্সিকে পাকিস্তান, সাউথ আফ্রিকা কিংবা আয়ারল্যান্ডের জার্সি বলে করছেন তীব্র সমালোচনা।

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সির ডিজাইন ও বিপণনের দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠানের নাম স্পোর্টস এন্ড স্পোর্টস ডিজাইন। এ প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তা ব্যক্তি ও বিশ্বকাপ জার্সির ডিজাইনার মাহতাবুদ্দিন আনোয়ার আহমেদ সেন্টু বিশ্বকাপ জার্সি নিয়ে কথা বলেছেন টাইগার্স কেইভের সাথে। তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন রুহেল বিন ছায়েদ।

টাইগার্স কেইভঃ বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি নিয়ে কাজ করেছে আপনার প্রতিষ্ঠান। কেমন লাগছে?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ অবশ্যই ভালো অনুভূতি। এরকম একটি ইভেন্টে দেশের প্রতিনিধিদের জন্য জার্সি নিয়ে কাজ করা গর্বের।

টাইগার্স কেইভঃ আজ আনুষ্ঠানিকভাবে জার্সি উন্মোচিত হওয়ার পর বেশ সমালোচনা হচ্ছে জার্সি ডিজাইন নিয়ে। এ বিষয়ে কি বলবেন?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ সমালোচনা হচ্ছে তা দেখছি। এতে আমাদের কি করার আছে বলেন। জার্সি বিসিবি’র পছন্দে নির্বাচিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমাদের কাজ ছিলো জার্সি তৈরি করে দেয়া যা আমরা করে দিয়েছি।

টাইগার্স কেইভঃ বোর্ড সভাপতি বলেছেন জার্সি ক্রিকেটারদের পছন্দে চূড়ান্ত করা হয়েছে। সত্যি কি তাই?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ এটা আমাদের জানার কথা না। তবে হ্যাঁ, ক্রিকেটারের পছন্দ হয়েছে তা আমি জেনেছি। যারা খেলবে তারাই যদি পছন্দ করে তবে আমাদের এতো কথা বলে কি লাভ?

টাইগার্স কেইভঃ বাংলাদেশের জার্সি বলতে আমরা বুঝি লাল সবুজের মিশ্রণ। এ জার্সিতে লালের কোনও ছোঁয়া পর্যন্ত নেই। এর কারণ কি?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ সত্যি বলতে এ জার্সির বাংলাদেশ নামটা আর ক্রিকেটারদের নাম নাম্বার লাল শেইপে দেয়া হয়েছিলো। আইসিসির সিদ্ধান্তে লালের জায়গায় সাদা দেয়ার প্রয়োজন পড়েছে। অর্থাৎ আমরা লাল যে দেইনি তা নয়, আইসিসি লাল দিতে দেয়নি।

টাইগার্স কেইভঃ আপনারা কি কেবল এই ডিজাইন দু’টিই দিয়েছিলেন বিসিবিকে?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ না, আমরা বিসিবিকে মোট ২০টি ডিজাইন দিয়েছিলাম। এর মধ্যে এই দু’টি চূড়ান্ত হয়েছে।

টাইগার্স কেইভঃ অনেকে এ জার্সিতে পাকিস্তানের ছায়া দেখছেন। কি বলবেন?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ আসলে যার যার ব্যাক্তিগত মত যে কেউ দিতে পারে। বাংলাদেশ স্বাধীন দেশ, বাক স্বাধীনতা আছে সবার। তবে এরকম আরেকটি দেশের সাথে মিলিয়ে ফেলা আমার ব্যাক্তিগতভাবে বাড়াবাড়ি বলেই মনে হচ্ছে।

টাইগার্স কেইভঃ জার্সি ডিজাইন পরিবর্তনের কি আর সম্ভাবনা আছে?
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ এটা আসলে আমি বলার কেউ না। বিসিবি এর ভালো উত্তর দিতে পারবে। আমাদের কাজ বানিয়ে দেয়া, এই যা।

টাইগার্স কেইভঃ ধন্যবাদ আমাদের সময় দেয়ার জন্য।
মাহতাবুদ্দিন সেন্টুঃ আপনাকেও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here